সৈনিক হত্যা দিবস ৭ নভেম্বর : হাছান


Published: 2019-11-07 19:16:04 BdST, Updated: 2019-11-15 14:38:22 BdST

 

ঢাকা, ৭ নভেম্বর, ২০১৯ বৃহস্পতিবার : তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস নয় বরং সৈনিক হত্যা দিবস।
তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমান এই দিনে সৈনিকদের রক্তপাত ঘটিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করেছিলেন। তাই, এই দিনটি প্রকৃতপক্ষে, ‘সৈনিক হত্যা দিবস’।
মন্ত্রী আজ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত একটি অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদেরকে একথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘এই দিনটি জাতীয় বিপ্লব দিবস হিসেবে পালনের কোনই যৌক্তিকতা নেই। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, প্রতিটি অন্যায়েরই প্রতিকার হওয়া উচিত । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চালিয়ে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকা-ের বিচার সম্পন্ন হয়েছে। কয়েকজন যুদ্ধাপরাধীর বিচারের রায় কার্যকর হয়েছে।’
তিনি বলেন, ৩ নভেম্বর জেলহত্যার বিচারকাজ সম্পন্ন হয়েছে। তবে, এখনো অনেক হত্যারই বিচার শেষ হয়নি। আমি মনে করি, দেশে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত করতে হলে প্রতিটি হত্যারই বিচার সম্পন্ন করতে হবে।
তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ আরো বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, সৈনিক হত্যার সঙ্গে জড়িততদের মুখোশ উন্মোচনের জন্য একটি কমিশন গঠন করা উচিত।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রকৃতপক্ষে, ১৫ আগস্ট, ৩ নভেম্বর ও ৭ নভেম্বরের ঘটনাগুলো একই সুত্রে গাঁথা।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সম্পাদক: মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান পলাশ

যোগাযোগ: গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্স, রুম নং-১০০, ঢাকা। মোবাইল: ০১৭৪০-৫৯৯৯৮৮. E-mail: odhikarpatra@gmail.com

সম্পাদক: মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান পলাশ

যোগাযোগ: গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্স, রুম নং-১০০, ঢাকা। মোবাইল: ০১৭৪০-৫৯৯৯৮৮. E-mail: odhikarpatra@gmail.com


Developed by: EASTERN IT