ভারতে একদিনে মৃত্যু সাড়ে ৪ হাজার ছাড়াল


Published: 2021-05-19 13:02:31 BdST, Updated: 2021-06-25 07:30:01 BdST

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মহামারি করোনার থাবায় টাল-মাটাল অবস্থা বিরাজ করছে প্রতিবেশী দেশ ভারতে। বিপর্যয় নেমে এসেছে দেশটির স্বাস্থ্য সেবা খাতে। প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর তালিকা। অধিক মৃত্যুর কারণে ব্যাহত হচ্ছে মৃতদেহের সৎকার ও দাফন কার্যক্রম।

গত তিনদিন ধরে দৈনিক সংক্রমণ কমলেও দিন দিন বেড়েই চলেছে মৃত্যুর সংখ্যা। দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড হয়েছিল সোমবার। এ দিন ভারতে মারা গিয়েছিলেন ৪ হাজার ৩২৯ জন করোনা রোগী। মঙ্গলবার (১৮ মে) সেই সংখ্যা ছাপিয়ে গেছে। সেই সঙ্গে এই প্রথম একদিনে সাড়ে চার হাজারের বেশি মৃত্যু দেখেছে ভারত।

গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যাও বেড়েছে ভারতে। মঙ্গলবার দেশটিতে করোনা আক্রান্ত নতুন রোগীর সংখ্যা পৌঁছেছে ২ লাখ ৬৭ হাজার ৩৩৪ জনে। সোমবার এই সংখ্যা ছিল ২ লাখ ৬৩ হাজার ৫৩৩ জন।
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৬৭ হাজার ৩৩৪ জন। যা গতকালের তুলনায় চার হাজার বেশি। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই কোটি ৫৪ লাখেরও বেশি। একই সময়ে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন চার হাজার ৫২৯ জন। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ৮৩ হাজার ২৪৮ জনের।
ভারতীয় আরেক সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, করোনায় ভারতের সবচেয়ে বিপর্যস্ত দুই রাজ্য- দিল্লি ও মহারাষ্ট্রে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা কমে এলেও কর্নাটক, ছত্তিশগড়, হরিয়ানা, পাঞ্জাব, তামিলনাড়ু প্রভৃতি রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণ পরিস্থিতির দৃশ্যমান বড় কোনো উন্নতি দেখা যাচ্ছে না। ভারতের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যসমূহ, যেগুলো ‘সেভেন সিস্টার্স’ নামে পরিচিত- আসাম, মণিপুর, নাগাল্যান্ড, মিজোরাম, অরুণাচল, সিকিম ও ত্রিপুরায় কিছুটা অবনতি হয়েছে দৈনিক সংক্রমণ পরিস্থিতির।
মঙ্গলবার এক টুইটে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী হর্ষ বর্ধন জানিয়েছেন, দেশের ২২ টি রাজ্যে করোনা আক্রান্তের হার বেড়েছে ১৫ শতাংশেরও বেশি। বর্তমানে ভারতে করোনায় আক্রান্তের গড় হার ১৩ দশমিক ৩১ শতাংশ।
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বুধবারের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার দেশজুড়ে করোনা টেস্ট করিয়েছেন ২০ লাখ ৮ হাজার ২৯৬ জন। এটিও একটি রেকর্ড। ভারতে এর আগে এক দিনে এত সংখ্যক মানুষ করোনা টেস্ট করাননি।
দেশবাসীকে সতর্ক করে বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘এই হার যেন কোনোভাবেই ২ শতাংশে উন্নীত না হয়ে সেজন্য আমাদের সবাইকে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। টিকা গ্রহণ ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে কোনো প্রকার শিথিলতা প্রদর্শন না করতে দেশবাসীকে আহ্বান জানানো হচ্ছে।’
এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার (১৯ মে) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন আরও ১৩ হাজার ৯৪৩ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ১১ হাজার ১৭৪ জন। এ নিয়ে বিশ্বে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৪ লাখ ১৮ হাজার ৪৩০ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ কোটি ৪৮ লাখ ৮৬ হাজার ৭৬৮ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪ কোটি ৩৮ লাখ ১১ হাজার ৫৪২ জন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সম্পাদক: মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান পলাশ

যোগাযোগ: গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্স, রুম নং-১০০, ঢাকা। মোবাইল: ০১৭৪০-৫৯৯৯৮৮. E-mail: odhikarpatra@gmail.com

সম্পাদক: মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান পলাশ

যোগাযোগ: গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্স, রুম নং-১০০, ঢাকা। মোবাইল: ০১৭৪০-৫৯৯৯৮৮. E-mail: odhikarpatra@gmail.com


Developed by: EASTERN IT