ঢাকা | শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০

হত্যা মামলায় নীলফামারীতে সৎ মায়ের যাবজ্জীবন

odhikarpatra | প্রকাশিত: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ০৮:১২

odhikarpatra
প্রকাশিত: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ০৮:১২

নীলফামারী, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩  : জেলায় ১৭ বছর বয়সী তরুণ হারুন অর রশিদ হত্যা মামলায় সৎ মা শাহনাজ বেগমের (৪৭) যাবজ্জীবন কারাদন্ডের রায় দিয়েছে আদালত। 

রায়ে ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো তিন মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়। 
বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ মো. মাহমুদুল করিম ওই রায় ঘোষণা করেন। 
সাজাপ্রাপ্ত শাহনাজ বেগম সৈয়দপুর উপজেলার মুন্সিপাড়া খেজুরবাগ গ্রামের মৃত আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।
মামলার সূত্রে জানাগেছে, ২০১০ সালের ১২ নভেম্বর রাতে ১৭ বছর বয়সী ছেলে হারুন অর রশিদকে তার বাবা আনোয়ার হোসেন ও সৎ মা শাহনাজ বেগম মারধর করেন। বেধড়ক মারধরে হারুন অর রশিদ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে প্রথমে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তর করা হলে সেখানে পৌঁছার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 
এঘটনায় পরদিন বাবা আনোয়ার হোসেন ও সৎ মা শাহনাজ বেগমের বিরুদ্ধে সৈয়দপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন নিহত হারুন অর রশিদের মা হোসনে আরা। 
পুলিশ তদন্ত শেষে ওই হত্যা মামলায় হারুন অর রশিদের বাবা আনোয়ার হোসেন ও তার (হারুন) সৎ মা শাহনাজ বেগমের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জসীট দাখিল করেন। 
নীলফামারী জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অক্ষয় কুমার রায় জানান, মামলা চলাকালে আসামী আনোয়ার হোসেনের মৃত্যু হয়। দীর্ঘ শুনানী শেষে বৃহস্পতিবার আদালতের বিচারক একমাত্র জীবিত আসামী নিহতের সৎ মা শাহনাজ বেগমকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: