ঢাকা | রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১

গোদাগাড়ীতে স্বর্ণের চেন চুরির ঘটনায় ৪ মহিলা আটক

odhikar patra | প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২৩:০২

odhikar patra
প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২৩:০২

রবিউল ইসলাম মিনাল :গোদাগাড়ী(রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ.... রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে প্রেমতলী সরকারি মেডিকেল হাসপাতালে । ইং ২৪/০৯/২০২৩ তারিখ রোজ রবিবার সকাল অনুমান ০৯.৩০ ঘটিকার সময় স্বর্ণের চেইন চুরির ঘটনা ঘটে। মোসাঃ সুফিয়া খাতুন (৫০), স্বামী- মোঃ গোলাম মোস্তফা, সাং- শেখপুর, ইউপি- গোগ্রাম, থানা- গোদাগাড়ী, জেলা- রাজশাহীর গলার স্বর্ণের কেচি দিয়ে কাটার চেষ্টা করে। এ সময় স্থানীয় জনগণ ও পুলিশের সহায়তায় তাদের করা হয় আটককৃত আসামী, ১। মোসাঃ সেলিনা আক্তার জোসনা (৪০), স্বামী- মোঃ ওস্তার আলীকালাচান, পিতা- মোঃ নূর মিয়া, ২। মোসাঃ রুমানা আক্তার আঁখি (২০), স্বামী- মোঃ মজনু, পিতা- মোঃ ওস্তার আলী কাঁলাচান, ৩। মোসাঃ সুবর্ণা খাতুন চাঁদনী (২১), স্বামী- মৃত আকাশ, পিতা- মোঃ ওস্তার আলী (2) কাঁলাচান, ৪। মোসাঃ শিরিনা আক্তার জুমা (৩০), স্বামী- মোঃ আলাউদ্দিন জামাল, সকলের সাং- ডরমন্ডল, থানা- নাসিরনগর, জেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া এদেরকে আটক করে রাখে পরে প্রেমতলী পুলিশ ফাঁড়িরিতে খবর দেওয়া হয়। মোসাঃ সুফিয়া খাতুন একসাথে কথা বললে তিনি জানান আমি আমার ডায়াবেটিস রোগের কিছু ঔষধ নেওয়ার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, গোদাগাড়ী (প্রেমতলী), রাজশাহীতে গিয়ে টিকিট কাউন্টার থেকে টিকিট কেটে সিরিয়াল অনুযায়ী লাইনে দাঁড়িয়েছিলাম। আমার পেছনে উক্ত ১নং আসামী সেলিনা ও ২নং আসামী রুমানা এবং আমার সামনে ৩নং আসামী সুবর্ণা ও ৪নং আসামী শিরিনা একই সারিতে দাঁড়িয়ে একই উদ্দেশ্যে সাধনকল্পে চুরি করার নিমিত্তে ইচ্ছাকৃতভাবে ধাক্কাধাক্কি করিয়া আমাকে ঘিরে ধরে। তারপর আমার পেছনে থাকা ১নং আসামী সেলিনা তাহার হাতে থাকা একটি কাঁচি দিয়ে কৌশলে আমার গলায় পরিহিত ০১ ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন যাহার মূল্য অনুমান ৯০,০০০/- (নব্বই হাজার) টাকা চুরি করার নিমিত্তে কেটে দেয়। তখন আমার গলায় পরিহিত স্বর্ণের চেইনটি নিচে মেঝেতে পড়ে গেলে উক্ত ১নং আসামী সেলিনা অন্যান্য সকল আসামীর সহায়তায় তা চুরি করিয়া নেয় । তখন আমি আমার গলায় হাত দিয়া স্বর্ণের চেইন চুরির বিষয়টি বুঝতে পারিয়া ডাক চিৎকার করিলে আশেপাশের লোকজন ও হাসপাতাল স্টাফ্রা মিলে উক্ত আসামীদেরকে আটক করা হয়। প্রেমতলী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে পুলিশ জানাই ঘটনাস্থলে গিয়া তাহাদেরকে হেফাজতে নিয়ে তল্লাশী করিয়া উক্ত ১নং আসামী সেলিনার নিকট হইতে আমার সেই ০১ ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ও চুরির কাজে ব্যবহৃত কাঁচি উদ্ধার করে। উক্ত আসামিদের বিরুদ্ধে চুরির মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: